adplus-dvertising

কোম্পানীগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে ৩টিতে কাদের মির্জা

কোম্পানীগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে ৩টিতে কাদের মির্জা, সোমবার কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার নয়টি ইউনিয়নে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে

সপ্তম

পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৪৮ জন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৯৪ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ২৬০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা

করেন।

এবার দলীয় প্রতীক ছাড়াই নির্বাচন হয়েছে। সপ্তম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা জেলার

কোম্পানীগঞ্জ

উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৩টিতে সমর্থন দেন এবং সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল ৪টি এবং

জামায়াতে

ইসলাম ১টিতে সমর্থন দেন।

আরও খবর পেতে ভিজিট করুউঃ dailypotrika.xyz

কোম্পানীগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে ৩টিতে কাদের মির্জা

নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ থেকে কাউকে দলীয় প্রতীক নৌকা দেওয়া হয়নি। তবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের নেতৃত্বে আটটি ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে পৃথক প্রার্থী দেওয়া হয়েছে। .

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ১নং সিরাজপুর ইউনিয়নে নাজিম উদ্দিন মাইকন সমর্থিত আব্দুল কাদের মির্জা, ৩নং চর হাজারী ইউনিয়নে

মহি উদ্দিন সোহাগ, ৮নং মুছাপুর ইউনিয়নে আইয়ুব আলী, ৪নং চরকাঁকড়া ইউনিয়নে হানিফ সবুজ সমর্থিত।

সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

মিজানুর রহমান বাদল, চর ফকিরা ইউনিয়নে ৫ জায়েদাল হক কচি, রামপুর ইউনিয়নে সিরাজিস সালেকিন রিমন, চর এলাহী ইউনিয়নে আব্দুর

রাজ্জাক ও চর পার্বতী ইউনিয়নে জামায়াতে ইসলামী সমর্থক মোহাম্মদ হানিফ নির্বাচিত হয়েছেন। অনানুষ্ঠানিকভাবে
তিনি বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, ৮ম পর্বে অনুষ্ঠিতব্য ৮টি ইউনিয়নে ৩৯ জন চেয়ারম্যান, ৩০৫ জন সাধারণ সদস্য ও ৬৯ জন নারী সদস্য সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে

প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। আটটি ইউনিয়নের ৬টি কেন্দ্রে মোট ভোটার ১ লাখ ৮২ হাজার ৫২৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯৩,৮৫৮ এবং

মহিলা ভোটার ৬,০৬১ জন।

কোম্পানীগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে ৩টিতে কাদের মির্জা

রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী, ইটনা সদর ইউনিয়নে সোহাগ মিয়া (চশমা) ৫ হাজার ১১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উমর ফারুক (অটোরিকশা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৬৫ ভোট।

চৌগাঙ্গা ইউনিয়নে ছাইফুল ইসলাম (ঢোল) ২ হাজার ৭১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তোফায়েল আহমেদ (চশমা) পেয়েছেন ১ হাজার ৭২ ভোট।

About Admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.