adplus-dvertising

ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে নাচিয়ে ঐশ্বরিয়াকে

ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে নাচিয়ে ঐশ্বরিয়াকে, বলিউড তারকারা প্রায়ই বিতর্কের বিষয়। সত্য বা মিথ্যা, সেলিব্রিটিরা এসব বিতর্কে অস্বস্তিতে পড়েন।

এমন

অনেক অস্বস্তিকর বিতর্কে জড়িয়েছেন বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনও। মডেলিং থেকে ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ খেতাব। এরপর বলিউডের নায়িকা।

হলিউড

জাতীয় সীমানা অতিক্রম করে। বাইরে কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের লাল গালিচা। অমিতাভ বচ্চনের পুত্রবধূ তার ক্যারিয়ারে অনেক সোনালী মুহূর্ত

দেখেছেন।

এসব অর্জনের মধ্যে তিনি একাধিকবার অস্বস্তিকর বিতর্কে জড়িয়েছেন।

আরও খবর পেতে ভিজিট করুউঃ dailypotrika.xyz

ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে নাচিয়ে ঐশ্বরিয়াকে

মাঝে মাঝে মাঝরাতে বাড়ির সামনে ‘বয়ফ্রেন্ড’ সালমান চিৎকার করে। স্বামী অভিষেক বচ্চনের সামনে এক মঞ্চে অজয় ​​দেবগনের ‘চুমু’।

ফের একবার খোদ অমিতাভের সঙ্গে তাঁর ‘সম্পর্ক’ নিয়ে জল্পনা। বলুন তো, এতসব অস্বস্তিকর বিতর্কে কার মেজাজ ঠান্ডা হয়? এসব বিতর্কে

ঐশ্বরিয়ার মেজাজ খারাপ হতে বাধ্য। তার ভক্তরা সবসময় এই কথা বলে। সালমান খানের সঙ্গে ঐশ্বরিয়ার সম্পর্ক কখনোই কম উত্তপ্ত হয়নি।

জানা গেছে যে সঞ্জয় লীলা বানসালির 1999 সালের ছবি ‘হাম দিল দে চুকে সানাম’-এ একসঙ্গে কাজ করার সময় তারা ডেটিং করছিলেন।

2001 সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়। এর আগে সালমানকে আলিঙ্গন করতে বিব্রত হয়েছিলেন ঐশ্বরিয়া।

সালমানের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও শারীরিক হয়রানির অভিযোগও করেন তিনি। যদিও সালমান তাতে রাজি হননি। বিচ্ছেদের আগে এক-দুবার ঐশ্বরিয়ার অ্যাপার্টমেন্টের বাইরে চিৎকার করেছিলেন সল্লু মিয়া। তিনি আরও দাবি করেছেন যে বহু লোক ঐশ্বরিয়াকে তাঁর দরজায় কড়া নাড়তে দেখেছেন।

সালমান ছাড়াও অজয়কে নিয়ে ঐশ্বরিয়াও

কম বিব্রত ছিলেন না। তাহলে সালমান অতীত। চুটিয়ে ঘরের কাজ করছেন অভিষেকের সঙ্গে। অভিষেকের সামনে ঐশ্বরিয়াকে এমনভাবে জড়িয়ে ধরেন অজয়, যা কম বিতর্কিত নয়। পেজ থ্রিতে সেই ছবি দেখে অনেকেই ভেবেছিলেন অজয় ​​ঐশ্বরিয়াকে চুমু খাচ্ছেন।

নাকি তিনি অমিতাভের সঙ্গে ‘ডেট’ করছেন? এমন ফিসফিস শুনেছেন ঐশ্বরিয়াও। বলিউডের একটি শোতেও দুজনের ছবি ভাইরাল হয়েছে।

বিতর্ক সেলিব্রিটিদের জীবনের একটি অংশ। অনেকেই হয়তো বলবেন। কিন্তু অস্বস্তি লাগলে বলুন কার ভালো লাগে? আবারও অস্বস্তিতে পড়লেন ঐশ্বরিয়া। এবার অবশ্য প্রতিবেশী দেশটির সাবেক রাষ্ট্রপতি মো.

পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি ঐশ্বরিয়াকে ১০ কোটি রুপি দিয়েছেন। 2008 সালে যখন তিনি পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি ছিলেন, ঐশ্বরিয়া তার বাসভবনে একটি ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে পারফর্ম করার জন্য অর্থ নিয়েছিলেন। এমনটাই দাবি করেছেন পাকিস্তানের রাজনৈতিক বিশ্লেষক শহীদ মাসুদ।

ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে নাচিয়ে ঐশ্বরিয়াকে

ঘটনার সময় মাসুদ পাকিস্তানের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে লাইভ চ্যাট শো করছিলেন। একটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে যে তিনি একটি চ্যাট শোতে এ কথা বলেছেন। জারদারির ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানায়, এক রাতে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্টের বাসভবনে নাচছিলেন ঐশ্বরিয়া। এ জন্য জারদারি তাকে ১০ কোটি টাকা দিয়েছেন।

কোনটা সত্য না মিথ্যা জানা নেই। তবে মাসুদের দাবিতে অনেক পাকিস্তানি হতবাক। শোনা যাচ্ছে, মুখ না খুললেও গোটা বিতর্কে আহত হয়েছেন ঐশ্বরিয়া।

About Admin

Check Also

বিধ্বস্ত ট্যাঙ্ক আর লাশে ভরা ইউক্রেনের বুচা শহরের রাস্তা

বিধ্বস্ত ট্যাঙ্ক আর লাশে ভরা ইউক্রেনের বুচা শহরের রাস্তা

বিধ্বস্ত ট্যাঙ্ক আর লাশে ভরা ইউক্রেনের বুচা শহরের রাস্তা, কিয়েভ শহর ঘেরাও করে রেখে ইউক্রেনের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.